The Spy Who Came in from the Cold ( John le Carre)

দ্য স্পাই হু কেম ইন ফ্রম দ্য কোল্ড (জন লে কারে)

Product Summery

প্রকাশের পর থেকেই তুমুল জনপ্রিয়তা পাওয়া উপন্যাসটি টাইম ম্যাগাজিন নির্বাচিত সর্বকালের সেরা ১০০ উপন্যাসের তালিকার একটি। ২০০৫ সালে এটিকে বিগত পঞ্চাশ বছরের সেরা ক্রাইম থ্রিলার হিসেবে আখ্যা দিয়ে ‘ড্যাগার অফ দ্য ড্যাগারস’ পুরস্কার প্রদান করা হয়। স্নায়ু যুদ্ধের সময় তখন, আচমকাই পূর্ব জার্মানির সরকারি লোকজনের ভিতর লুকিয়ে থাকা ব্রিটিশ এজেন্টদের খুঁজে খুঁজে খুন করা হতে লাগলো। ওখানকার ব্রিটিশ ইন্টেলিজেন্স এর দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অ্যালেক লিমাসের চোখের সামনেই তার সর্বশেষ আর সবচেয়ে বিশ্বস্ত এজেন্ট কার্ল রিয়েমেক গুলি খেয়ে মারা পড়লো। ত্যক্ত-বিরক্ত-হতাশ লিমাস সিদ্ধান্ত নিলো যে সার্ভিস ছেড়ে দেবে। উপরওয়ালারাও তাকে ছেড়ে দিতে সম্মত হলো, কিন্তু একটা শর্তে। যাওয়ার আগে সর্বশেষ আর একটা মিশন- আচমকা এইসব ঘটনার কারণ উদ্ঘাটন করতে হবে, সেই সাথে উচিত শিক্ষা দিতে হবে ইস্ট জার্মানি কাউন্টার ইন্টেলিজেন্স এর চীফ মুন্ডটকে। কাজের স্বার্থে দেশদ্রোহী সাজলো লিমাস- যোগ দিলো পূর্ব জার্মানির পক্ষে। সাথে আছে তার পাঁড় কমিউনিস্ট গার্লফ্রেন্ড। কিন্তু একের পর এক পরস্পরবিরোধী তথ্য প্রমাণে মাথা খারাপ হওয়ার জোগাড় হলো তার। নিজের ছায়াকেও যেনো বিশ্বাস করা দায়। দীর্ঘ পেশাগত জীবনে, লিমাস এরচেয়ে বেশি জটিল আর কিছুতে আটকা পড়েনি কখনো। কিন্তু প্যাঁচ খুলতে যেতেই নিজের অস্তিত্ব- নিজের পরিচয়ের ভিত্তিটা ধরে নাড়া খেয়ে গেলো তার। খামখেয়ালিতে ফাঁস হয়ে গেলো পরিচয়... ব্যাপারটা কি শাপে বর নাকি বরে শাপ হয়ে এলো তার জন্যে!

Tab Article

প্রকাশের পর থেকেই তুমুল জনপ্রিয়তা পাওয়া উপন্যাসটি টাইম ম্যাগাজিন নির্বাচিত সর্বকালের সেরা ১০০ উপন্যাসের তালিকার একটি। ২০০৫ সালে এটিকে বিগত পঞ্চাশ বছরের সেরা ক্রাইম থ্রিলার হিসেবে আখ্যা দিয়ে ‘ড্যাগার অফ দ্য ড্যাগারস’ পুরস্কার প্রদান করা হয়। স্নায়ু যুদ্ধের সময় তখন, আচমকাই পূর্ব জার্মানির সরকারি লোকজনের ভিতর লুকিয়ে থাকা ব্রিটিশ এজেন্টদের খুঁজে খুঁজে খুন করা হতে লাগলো। ওখানকার ব্রিটিশ ইন্টেলিজেন্স এর দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অ্যালেক লিমাসের চোখের সামনেই তার সর্বশেষ আর সবচেয়ে বিশ্বস্ত এজেন্ট কার্ল রিয়েমেক গুলি খেয়ে মারা পড়লো। ত্যক্ত-বিরক্ত-হতাশ লিমাস সিদ্ধান্ত নিলো যে সার্ভিস ছেড়ে দেবে। উপরওয়ালারাও তাকে ছেড়ে দিতে সম্মত হলো, কিন্তু একটা শর্তে। যাওয়ার আগে সর্বশেষ আর একটা মিশন- আচমকা এইসব ঘটনার কারণ উদ্ঘাটন করতে হবে, সেই সাথে উচিত শিক্ষা দিতে হবে ইস্ট জার্মানি কাউন্টার ইন্টেলিজেন্স এর চীফ মুন্ডটকে। কাজের স্বার্থে দেশদ্রোহী সাজলো লিমাস- যোগ দিলো পূর্ব জার্মানির পক্ষে। সাথে আছে তার পাঁড় কমিউনিস্ট গার্লফ্রেন্ড। কিন্তু একের পর এক পরস্পরবিরোধী তথ্য প্রমাণে মাথা খারাপ হওয়ার জোগাড় হলো তার। নিজের ছায়াকেও যেনো বিশ্বাস করা দায়। দীর্ঘ পেশাগত জীবনে, লিমাস এরচেয়ে বেশি জটিল আর কিছুতে আটকা পড়েনি কখনো। কিন্তু প্যাঁচ খুলতে যেতেই নিজের অস্তিত্ব- নিজের পরিচয়ের ভিত্তিটা ধরে নাড়া খেয়ে গেলো তার। খামখেয়ালিতে ফাঁস হয়ে গেলো পরিচয়... ব্যাপারটা কি শাপে বর নাকি বরে শাপ হয়ে এলো তার জন্যে!

Tab Article

ADD A REVIEW

Your Rating

0 REVIEW for দ্য স্পাই হু কেম ইন ফ্রম দ্য কোল্ড (জন লে কারে) !

এ রকম আরও বই