Bisher Banshi

বিষের বাঁশী

Product Summery

১৯২৪ সালে কাজী নজরুল ইসলামের দু’টি কবিতার বই পরপর নিষিদ্ধ হয়। ‘বিষের বাঁশি’ হলো এরই একটি। নিষিদ্ধ ঘোষণা করেও বইটির প্রচার বন্ধ করা যায়নি। কবিতার বইটি সংগ্রহে যুবকদের আগ্রহের অন্ত ছিল না। ‘বিষের বাঁশি’র সুরে তরুণেরা তখন মাতোয়ারা। ‘প্রবাসী’র মতো অভিজাত পত্রিকা গ্রন্থটির প্রশংসা করে লিখেছিল, ‘কবিতাগুলি যেন আগ্নেয়গিরি, প্লাবণ ও ঝড়ে প্রচণ্ড রুদ্ররূপ ধরিয়া বিদ্রোহী কবির মর্মজ্বালা প্রকটিত করিয়াছে। জাতির এই দুর্দিনে মুমূর্ষু নিপীড়িত দেশবাসীকে মুত্যুঞ্জয়ী নবীন চেতনায় উদ্বুদ্ধ করিবে।’

আরও পড়ুন >

Tab Article

১৯২৪ সালে কাজী নজরুল ইসলামের দু’টি কবিতার বই পরপর নিষিদ্ধ হয়। ‘বিষের বাঁশি’ হলো এরই একটি। নিষিদ্ধ ঘোষণা করেও বইটির প্রচার বন্ধ করা যায়নি। কবিতার বইটি সংগ্রহে যুবকদের আগ্রহের অন্ত ছিল না। ‘বিষের বাঁশি’র সুরে তরুণেরা তখন মাতোয়ারা। ‘প্রবাসী’র মতো অভিজাত পত্রিকা গ্রন্থটির প্রশংসা করে লিখেছিল, ‘কবিতাগুলি যেন আগ্নেয়গিরি, প্লাবণ ও ঝড়ে প্রচণ্ড রুদ্ররূপ ধরিয়া বিদ্রোহী কবির মর্মজ্বালা প্রকটিত করিয়াছে। জাতির এই দুর্দিনে মুমূর্ষু নিপীড়িত দেশবাসীকে মুত্যুঞ্জয়ী নবীন চেতনায় উদ্বুদ্ধ করিবে।’

Tab Article

বাংলা সাহিত্যের এক বিস্ময়কর প্রতিভার নাম কাজী নজরুল ইসলাম। কবিতা, নাটক ও উপনাস্যের মতো শিল্পের প্রত্যেকটা ক্ষেত্রে তাঁর ছিলো অবাধ বিচরণ। লিখতেন গান, দিতেন সেইসব গানে সুর, আবার গাইতেনও| সাংবাদিক হিসেবেও কলম ধরেছিলেন। রাজনৈতিক অধিকার আদায়ের জন্য অংশগ্রহণ করেছিলেন নানা আন্দোলনেও| ধর্মান্ধতা, কুসংস্কার, সাম্প্রদায়িকতা ও পরাধীনতার বিরুদ্ধে তাঁর অবস্থান ছিল সুদৃঢ়। ১৮৯৯ সালে বর্ধমান জেলার চুরুলিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন বিদ্রোহী এই কবি। চরম দারিদ্রের মধ্যেই তাঁর বাল্য, কৈশোর ও যৌবন বয়স কাটে| দুঃখ-দূর্দশার মধ্যেও তিনি আজীবন সাহিত্যচর্চা করে গিয়েছিলেন। ১৯২২ সালের ৬ জানুয়ারি ‘বিজলী’ পত্রিকায় ‘বিদ্রোহী’ কবিতাটি প্রকাশিত হয়। কবিতাটি ব্যাপক জাগরণ সৃষ্টি করে। তাঁর উল্লেখযোগ্য রচনা হলো, বিষের বাঁশি, অগ্নিবীণা, কুহেলিকা প্রভৃতি। মুক্তিযুদ্ধের পর বঙ্গবন্ধু তাঁকে ঢাকায় নিয়ে এসে নাগরিকত্ব দেন। সেইসঙ্গে ভূষিত হন জাতীয় কবির মর্যদায়। ১৯৭৬ সালে কবি মৃত্যুবরণ করেন।

0 REVIEW for ' বিষের বাঁশী'

No review found

ADD A REVIEW

Your Rating


content title
Loading the player...