উপন্যাসিকা

Items Showing 1 to 11 from 11 books results

রাইকমল

তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
  • ফ্রি বই

মহেশ মণ্ডল খুশি হইয়া আর একবার তামাক সাজিয়া খাইয়াছিল, খাওয়াইয়াছিল। এবং এবার সে জিজ্ঞাসা করিয়াছিল, বাবাজীর নাম কি ? বাউলও ওই সুরে সুর মিলাইয়া বলিয়াছিল, কানা ছেলের নাম পদ্মলোচন-রসময় অনেক দূর, পঙ্করসে ডুবে রইলাম, বাপ-মা নাম দিয়েছেন রসিকদাস। ঘর কোথা গো? যাবে কোথা? ঘরের ঠিকানা বাউলের নাই বাবা, পথেই ঘুরছি; যাব ব্রজে তা পথের মাঝে পথ হারিয়েছি। ঠিক এই সময়েই ওই কমলিনীর সঙ্গে দেখা। মহেশ মোড়লের ছেলে রঞ্জনদের সঙ্গে খেলা সারিয়া সে তখন ঘরে ফিরিতেছিল। কচি মুখে রাসকলি ও খাটো চুলে বাঁধা চুড়া কুঁটি দেখিয়া বাউল বলিয়াছিল, এ যে দেখি খাসা বষ্টুমী! কি নাম গো তোমার? কমলিনী বলিয়াছিল, আমি কমল। বাউল বলিয়াছিল, শুধু কমল ন্যাড়া শোনায়, তুমি রাইকমল।

মাটির পিঞ্জিরা

ইমদাদুল হক মিলন
  • ৳৪০

‘খালপাড়ের নির্জনতায় লাঠিভর দিয়ে দাঁড়িয়ে পশ্চিম আকাশে ডুবতে বসা চাঁদের দিকে তাকিয়ে গভীর কষ্টের এক কান্নায় তারপর ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে কাঁদতে লাগল তারাজুল।’ কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলনের নভেলা ‘মাটির পিঞ্জিরা’র শেষ বাক্য এটি। লেখক তার চরিত্র বিন্যাসে জীবন বাঁকের এক উজ্জ্বল ছবি এঁকেছেন এই নভেলায়। জীনের গুঢ় রহস্য উন্মোচনের চেষ্টা করেছন। আবছায়া অন্ধকারে মুখের আড়ালের মুখোশকে দেখার মতোনই তিনি পরিচয় করিয়ে দেন পরিচিত-অপরিচিত চরিত্রদের সাথে। ‘বাড়ির তিনটা সেয়ানা মেয়ে রাতভর বাড়ি থাকছে না, বাড়ির লায়েক ছেলেটির সেই হদিস থাকবে তা কী করে সম্ভব? মা বাবা তাই জানবে না তাদের বাড়ির মেয়ে তিনটি হাটের আগের রাতে রাত কাটাতে যাচ্ছে হাটখোলার ছইলা নাওয়ে। রাত কাটিয়ে ফিরে আসছে ভোরবেলা। যাওয়ার সময় কে তাদের দুয়ার খুলে দিচ্ছে, ফেরার পর কে তাদের দুয়ার খুলে ঘরে নিচ্ছে ।’ অভাবের জীবনে এমন দৃশ্য পরি-শিরিদের মধ্যেই দেখা যায়। আর নিরব দর্শক তারাজুলের হাহাকার যেন জগতকে অসহ্য করে তোলে।

লাভ স্টোরি ২০৯৯

মশিউল আলম
  • ৳৫৫

সরল গদ্যে লেখা এই কাহিনি নিছক কল্পকাহিনি নয়। এক কল্পিত আর্থ-সামাজিক-রাজনৈতিক বাস্তবতায় আন্তঃমানবিক নানা দিক উঠে এসেছে যুক্তির সিঁড়ি বেয়ে। এ গল্পে আছেন সুগত মণ্ডল নামে এক ‘প্রাচীনপন্থী’ সমাজবিজ্ঞানী, যিনি বলতে চান মানুষের জন্মক্ষেত্র হিসেবে কারখানা অপেক্ষা নারীগর্ভ উত্তম; যিনি গবেষণা করে দেখিয়েছেন গর্ভজাত নারী-পুরুষেরা কারখানাজাতদের চেয়ে উৎকৃষ্ট। এই তত্ত্ব প্রচারের জন্য তাঁর বিরুদ্ধে শুরু হয় বিক্ষোভ-প্রতিবাদ, তাঁকে হত্যা করার জন্য পাঠানো হয় কিলার রোবট। গল্পে আরো আছে বায়োকেমিক্যাল চিপের কম্পিউটার, যে নিজেকে মহামতি সক্রেটিসের মতো প্রজ্ঞাবান বলে দাবি করে এবং মানুষের কাছে মানুষের সম্মান চায়। কাহিনির কেন্দ্রবিন্দুতে আছে তমাল নামের এক কারখানাজাত যুবক আর শীলা নামের এক গর্ভজাত যুবতী। একজন সমকামী পুরুষ, একজন সমকামী নারী। কিন্তু দৈবক্রমে তমাল শীলার প্রেমে পড়ে যায়। শীলা তমালের প্রেমকে নিষিদ্ধ, অস্বাভাবিক, পাগলামিপূর্ণ বলে প্রত্যাখ্যান করতে চায় কিন্তু পারে না। তার অজান্তে তমাল তার হৃদয় হরণ করে। লেসবিয়ান প্রবণতা লুপ্ত হয় শীলার। তার স্বপ্নে হানা দেয় পুরুষ।

নষ্টনীড়

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
  • ফ্রি বই

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তাঁর এই মেলোড্রামাটিক নভেলার মাধ্যমে, চিরায়ত নারীর মনস্তত্ত্বের জটিলতা এবং সেসময়কার সমাজ বাস্তবতা স্টাডি করেছেন। 'নষ্টনীড়' এর মূল চরিত্র চারুলতা তার কর্মব্যস্ত স্বামীর সাহচর্য সহসা পায়না।অন্যদিকে স্বামীর ছোটভাই অমলের ছেলেমানুষী সহসা চারুর মনে জায়গা করে নেয়,অমলকে সে ভালোবেসে ফেলে। রবীঠাকুর তাঁর অসাধারণ লেখনীতে চারুর ভালোবাসা কে জীবন্ত করে তুলেছেন। অমল এর লেখা যখন পত্রিকায় ছাপে, তখন সে লেখা হাজার-শতেক পাঠকের সাথে, তাদের মত করে চারুকেও ভাগাভাগি করে পড়তে হবে দেখে তীব্র ঈর্ষাবোধ চারুকে দগ্ধ করে। তার এই ঈর্ষাবোধ, সাথে তীব্র ভালোবাসা রবীন্দ্রনাথ ফুটিয়ে তুলেছেন অনন্য অসাধারন ভাবে। তবে যে কারণে এই লেখাটি অনবদ্য হয়ে উঠেছে, তা হলো শতর্বষ পরেও মানবমনের এই জটিলতা, আবেগের ওঠানামা, সমাজব্যবস্থার অসাম্যতা কিছুমাত্র বদলায়নি। রবীন্দ্রনাথ স্থান,কাল,পাত্র জয় করেছেন অনুভূতির মোহময় লেখনীতে...

Items Showing 1 to 11 from 11 books results

Boighor

Stay Connected