রম্য

Items Showing 1 to 16 from 16 books results

কঙ্কাবতী

ত্রৈলোক্যনাথ মুখোপাধ্যায়
  • ৳১০

‘কঙ্কাবতী’ বাংলা সাহিত্যের একটি রসাত্মক উপন্যাস। লেখক এতে কৌতুক এবং করুণা উদ্রেক করে বিনা আড়ম্বরে আপন কল্পনাশক্তির পরিচয় দিয়েছেন। ভূত-প্রেত ও কাল্পনিক জীব-জন্তু-এর এমন এক জগৎ নির্মাণ করেছেন যার অভিনবত্ব পাঠককে রূপকথার জগতে নিয়ে যাবে। এ জগৎ থেকে ত্রৈলোক্যনাথ মুখোপাধ্যায় আমদানি করেন কঙ্কাবতীকে। উপন্যাসের প্রথম ভাগে বর্ণিত হয়েছে বাস্তব জীবনের কথা। দ্বিতীয় ভাগে লেখক তাঁর লেখা নিয়ে যান রূপকথার কল্পজগতে। এ জগৎ ঘুরে এসে তিনি ফিরে যান বাস্তবলোকে। লেখক ত্রৈলোক্যনাথ মুখোপাধ্যায় তাঁর এ উপন্যাসে বাঙালি সমাজে প্রচলিত ভ্রান্ত বিশ্বাস ও অন্ধ সংস্কারকে আঘাত করেছেন।

বীর প্রতীকের খোঁজে

আনিসুল হক
  • ৳৪০

একদিকে মুক্তিযুদ্ধ, যুদ্ধের মৌল তাৎপর্যের অন্বেষণ, অন্যদিকে পোশাকি আয়োজনের প্রতি বিদ্রূপ-সব মিলিয়ে ‘বীর প্রতীকের খোঁজে’ বইটিতে লেখক আনিসুল হক, এক কমেডি অফ এররস রচনা করেছেন। একটি প্রশ্ন, ‘হঠাৎ করেই নিভে আসে উৎসবের আলো, কিন্তু কেন?’- বইটি পড়ে পাঠক কোনো শব্দের আলোয় হয়তো এই প্রশ্নের উত্তর অবলোকন করতে পারবেন না, হয়তো শুনতে পাবেন না একজন করিমন বেওয়া, মোমেনা বা সাবিনাদের বুকের ভেতর থেকে উঠে আসা আত্মচিৎকারের প্রতিধ্বনি। তবে বইটি পাঠ শেষে পাঠকের মন ঠিকই সন্ধান পাবে এক ভিন্ন জগতের, যেখানে তার ভেতরেই বসবাস করছেন করিমন বেওয়া ও আমাদের মুক্তিযুদ্ধ ও আমাদের দেশ।

হুতোম প্যাঁচার নকশা

কালীপ্রসন্ন সিংহ
  • ৳১০

‘হুতোম প্যাঁচার নকশা’ একটি স্যাটেয়ারধর্মী রচনা। এটি উনিশ শতকের মাঝামাঝি সময়ের কলকাতা ও তার নিকটবর্তী অঞ্চলের ধর্ম-নীতি-সামাজিক উৎসবের একটি নাতীদীর্ঘ বর্ণনা। বইয়ে লেখক নানা ব্যক্তি ও গোষ্ঠীর অসামাজিক আচরণ ও রুচিবৈকল্য নিয়ে ব্যঙ্গ-বিদ্রূপ করেছেন। কলকাতার কথ্য এবং সাধু ভাষায় লেখা ব্যঙ্গাত্মক এই রচনায় সে সময়ের কিছু মজার মজার অশালীন শব্দও ব্যবহৃত হয়েছে। যা পাঠককে দিবে বাড়তি আনন্দ। রম্য রচনার এই আকাল সময়ে পুরনো এই বইটি রম্যপাঠকের চাহিদা মেটাতে সক্ষম। নতুন পাঠকদের জন্য প্রথম দিকে ভাষার ধরণ বুঝতে একটু কষ্ট হলেও এক-দুইটি পরিচ্ছেদ পড়ার পর পাঠক রচনাশৈলী ধরে ফেলতে পারবেন নিশ্চিত।

বিয়ে আধুনিক স্টাইল

রাবেয়া খাতুন
  • ৳৫৫

ছুটির দুপুরে ক্লাবের আড্ডা তখন জমজমাট। কেউ বই পড়ছে অলসভাবে, কেউ ফ্রি-হ্যান্ড এক্সারসাইজ, চলছে ব্যায়ামের জন্য আরো যন্ত্রপাতি আনার আলোচনা, সাথে ঠাট্টা-মশকরা আর এক-আধটু বাঁদরামোও। এর মধ্যেই সান্টু গলা নামিয়ে রকিকে বল্লো, ওস্তাদ তোমার সীসপিয়া তুমি যাকে ডাকো লীলা বলে তিনি সব লীলাখেলা শেষ করে পরের বাড়ি চলে যাচ্ছেন। রকির ভাই রসি বলে উঠল, আমার ভাই গত এক বছর থেকে মজনু। লায়লীর কোনও রাইট নেই তাকে ত্যাগ করার বা দাগা দেবার। সেদিকে কান নেই রকির, স্বপ্ন দেখছিল সে- বিয়ের পর চলে যাবে ইটালিতে। পাহাড় আর ঝর্ণার ধারে ছোট্ট এক ভিলায় কফির পেয়ালা মুখোমুখি রেখে লীলা আর সে। সে আর লীলা। সে স্বপ্ন কি ভেঙ্গে যাবে এবার?

Items Showing 1 to 16 from 16 books results

Boighor

Stay Connected