Ernest Hemingway Sera Dosh Golpo

আর্নেস্ট হেমিংওয়ে সেরা দশ গল্প

Product Summery

মেদহীন ঝরঝরে গদ্যে, অল্প কথায়, জীবনের সবচেয়ে জটিল সমস্যা নিয়ে গল্প বলেন বিশ্বের অন্যতম সেরা কথাসাহিত্যিক আর্নেস্ট মিলার হেমিংওয়ের। তাঁর লেখার ধরনকে বলা হয় ‘আইসবার্গ থিওরি’ হিসেবে, যেটি theory of omission হিসেবেও ব্যাখ্যাত। ‘কিলিমানজারোর বরফপুঞ্জ’ গল্পটি ১৯৩৬ সালে লেখা। লেখকের সবচেয়ে দীর্ঘ ও বহুলপঠিত গল্পগুলোর একটি। এ কাহিনি নিয়ে ২০১১ সালে ফরাসি চলচ্চিত্র নির্মিত হয়। গল্পে হেমিংওয়ে চেতনাপ্রবাহ রীতির ব্যবহার করেছেন। ‘ব্রিজের ধারে বৃদ্ধ/সেতুর পাশে বুড়ো’ (‘ওল্ড ম্যান অ্যাট দ্য ব্রিজ’) প্রথম প্রকাশিত হয় ১৯৩৮ সালে। স্প্যানিশ সিভিল ওয়ার চলাকালীন একজন যোদ্ধা ও ৭৬ বছর বয়সী বৃদ্ধের কথোপকথন নিয়ে গল্প। ‘দ্য মাদার অব আ কুইন’ (কুইনের মা) গল্পটি প্রকাশিত হয় ১৯৩৩ সালে। হেমিংওয়ে সমকামিতা নিয়ে যে কয়েকটি গল্প লিখেছেন তার মধ্যে এটি বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। ‘ফ্রান্সিস ম্যাকোম্বারের সংক্ষিপ্ত সুখী জীবন’ গল্পটির প্রেক্ষাপট আফ্রিকা। ফ্রান্সিস ম্যাকোম্বার ও তার স্ত্রী মার্গারেট আফ্রিকা যায় শিকারে। সেখানে স্ত্রীর ভুল ফায়ারে নিহত হয় ম্যাকোম্বার। হেমিংওয়ের সবচেয়ে সফল গল্পগুলোর একটি এটি। গল্পটি নিয়ে আলোচনা- সমালোচনা দুটিই প্রচলিত। প্রায় শেষরাতে পানশালায় যখন পান করছে বধির বৃদ্ধ চরিত্রটি— দুজন ওয়েটার তার উঠে যাওয়ার অপেক্ষা করছে। একজন ওয়েটার জানায় যে, বৃদ্ধ সম্প্রতি আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেছে। কারণ হিসেবে তারা হতাশাকে চিহ্নিত করে। হতাশার কারণ ‘নাথিং’। গল্পের নাম ‘আ ক্লিন, ওয়েল-লাইটেড পেইস’। অন্য গল্পগুলো হলো— আদিবাসী শিবির, ডাক্তার ও তার স্ত্রী, ক্যানারি পাখিটা একজনের জন্য, কেউ কখনো মরে না ও যুদ্ধফেরত সৈনিক।

Tab Article

মেদহীন ঝরঝরে গদ্যে, অল্প কথায়, জীবনের সবচেয়ে জটিল সমস্যা নিয়ে গল্প বলেন বিশ্বের অন্যতম সেরা কথাসাহিত্যিক আর্নেস্ট মিলার হেমিংওয়ের। তাঁর লেখার ধরনকে বলা হয় ‘আইসবার্গ থিওরি’ হিসেবে, যেটি theory of omission হিসেবেও ব্যাখ্যাত। ‘কিলিমানজারোর বরফপুঞ্জ’ গল্পটি ১৯৩৬ সালে লেখা। লেখকের সবচেয়ে দীর্ঘ ও বহুলপঠিত গল্পগুলোর একটি। এ কাহিনি নিয়ে ২০১১ সালে ফরাসি চলচ্চিত্র নির্মিত হয়। গল্পে হেমিংওয়ে চেতনাপ্রবাহ রীতির ব্যবহার করেছেন। ‘ব্রিজের ধারে বৃদ্ধ/সেতুর পাশে বুড়ো’ (‘ওল্ড ম্যান অ্যাট দ্য ব্রিজ’) প্রথম প্রকাশিত হয় ১৯৩৮ সালে। স্প্যানিশ সিভিল ওয়ার চলাকালীন একজন যোদ্ধা ও ৭৬ বছর বয়সী বৃদ্ধের কথোপকথন নিয়ে গল্প। ‘দ্য মাদার অব আ কুইন’ (কুইনের মা) গল্পটি প্রকাশিত হয় ১৯৩৩ সালে। হেমিংওয়ে সমকামিতা নিয়ে যে কয়েকটি গল্প লিখেছেন তার মধ্যে এটি বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। ‘ফ্রান্সিস ম্যাকোম্বারের সংক্ষিপ্ত সুখী জীবন’ গল্পটির প্রেক্ষাপট আফ্রিকা। ফ্রান্সিস ম্যাকোম্বার ও তার স্ত্রী মার্গারেট আফ্রিকা যায় শিকারে। সেখানে স্ত্রীর ভুল ফায়ারে নিহত হয় ম্যাকোম্বার। হেমিংওয়ের সবচেয়ে সফল গল্পগুলোর একটি এটি। গল্পটি নিয়ে আলোচনা- সমালোচনা দুটিই প্রচলিত। প্রায় শেষরাতে পানশালায় যখন পান করছে বধির বৃদ্ধ চরিত্রটি— দুজন ওয়েটার তার উঠে যাওয়ার অপেক্ষা করছে। একজন ওয়েটার জানায় যে, বৃদ্ধ সম্প্রতি আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেছে। কারণ হিসেবে তারা হতাশাকে চিহ্নিত করে। হতাশার কারণ ‘নাথিং’। গল্পের নাম ‘আ ক্লিন, ওয়েল-লাইটেড পেইস’। অন্য গল্পগুলো হলো— আদিবাসী শিবির, ডাক্তার ও তার স্ত্রী, ক্যানারি পাখিটা একজনের জন্য, কেউ কখনো মরে না ও যুদ্ধফেরত সৈনিক।

Tab Article

কথাশিল্পী-প্রাবন্ধিক ও অনুবাদক মোজাফ্ফর হোসেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগ থেকে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করে সাংবাদিকতা দিয়ে কর্মজীবন শুরু করেন। বর্তমানে বাংলা একাডেমির অনুবাদ উপবিভাগে কর্মরত। প্রধানত ছোটগল্পকার। পাশাপাশি সাহিত্য সমালোচক ও অনুবাদক হিসেবেও তাঁর পরিচিতি আছে। অতীত একটা ভিনদেশ' গল্পগ্রন্থের জন্য তিনি এক্সিম ব্যাংক-অন্যদিন হুমায়ূন আহমেদ কথাসাহিত্য পুরস্কার এবং স্বাধীন দেশের পরাধীন মানুষেরা' গল্পগ্রন্থের জন্য আবুল হাসান সাহিত্য পুরস্কার অর্জন করেছেন। এছাড়াও ছোটগল্পের জন্য তিনি অরণি সাহিত্য পুরস্কার ও বৈশাখি টেলিভিশন পুরস্কারে ভূষিত হন। ছোটগল্প নিয়ে তাঁর পাঠে বিশ্লেষণে বিশ্বগল্প' বইটি বাংলা সাহিত্যে অনন্য সংযোজন হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে।

ADD A REVIEW

Your Rating

1 REVIEW for আর্নেস্ট হেমিংওয়ে সেরা দশ গল্প !

গল্পগুচ্ছ তো ভালোই, কিন্তু অনুবাদ খুবই কাঁচা। এক পর্যায়ে উপভোগ না করে বিরক্ত লাগতে শুরু করে

Nafisa Nawar Suchana 2022-07-05 10:41:57

এ রকম আরও বই