"দেশের প্রখ্যাত নাট্যকার মামুনুর রশীদের নাটক সংক্রান্তি। নাটকটিতে গ্রামের বিত্তহীন মানুষের সুখ-দুঃখ তুলে ধরেছেন তিনি। একটি গ্রামের কিছু বিত্তহীন মানুষ সঙ সেজে, ঢাক-ঢোল বাজিয়ে অন্যদের আনন্দ দিত। যা আয় হতো, তা দিয়ে তাদের সংসার চলত। কিন্তু একপর্যায়ে ওই গ্রামের প্রভাবশালীরা তাদের এই কাজে বাধা দেয় ও শিল্পকর্মের সব যন্ত্রপাতি কেড়ে নেয়। এতে গ্রামের ওই মানুষগুলোর জীবনে ক্রান্তিকাল নেমে আসে। এমন আবহকে লেখুনীর সুনিপুন গাঁথুনীতে লেখক তার সমাজচিন্তা পাঠকের সামনে তুলে ধরেছেন। নিন্মবিত্ত মানুষের জীবনের গল্প বইয়ের পাতায় আঁকতে গিয়ে লেখক হয়ে উঠেছেন তাদেরই একজন। তাতে পাঠকও গল্পের ভেতর তাদের একজন হয়েই বিচরণ করতে পারবেন। চোখের সামনিই দেখতে পাবেন গল্পের চরিত্রগুলোকে। ঘটনা প্রবাহের সঙ্গে সামাজিক ও রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটকে।"

মামুনুর রশীদ স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশের মঞ্চ আন্দোলনের পথিকৃত। তার নাটকে প্রখর সমাজ সচেতনতা লক্ষনীয়। শ্রেণী সংগ্রাম তার নাটকের এক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়বস্তু। তিনি ১৯৪৮ সালে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭১ সালে তিনি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে যোগ দেন এবং জড়িত হন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের সঙ্গে। সেই সময়টাও তাঁর নাট্যচর্চায় প্রতিফলিত হয়েছে বিভিন্ন সময়ে। ১৯৭২ সালে কলকাতা থেকে স্বাধীন বাংলাদেশে ফিরে তিনি তৈরি করেন তাঁর আরণ্যক নাট্যদল। মামুনুর রশীদ নাট্যকার হিসেবে বেশ কয়েকটি নাটক রচনা ও পরিচালনা করেছেন। তাঁর উল্লেখযোগ্য নাটকগুলো হলো: ওরা কদম আলি, ওরা আছে বলেই, ইবলিশ, এখানে নোঙ্গর, গিনিপিগ, জয় জয়ন্তী, সংক্রান্তি, লেবেদেফ ইত্যাদি। ২০১২ সালে তিনি একুশে পদকে ভুষিত হন।

No review found

Write a review

    Bad           Good
content title
Loading the player...
Boighor

Stay Connected