মারুফুল ইসলামের কবিতায় আধুনিক মানুষের নেতি, হতাশা এবং দ্রোহ যেমন রয়েছে তেমনি রয়েছে প্রেম ও রোমান্টিকতা। তার প্রকাশভঙ্গি অনুচ্চ। শব্দ চয়ন মনোযোগসমৃদ্ধ। তার কবিতায় প্রকৃতি, মানুষের প্রকাশ্য-অপ্রকাশ্য চিন্তাভাবনা, বোধ, অনুভূতি, প্রেম-বিরহ, প্রতিদিনের ছবি, মানুষে-মানুষে সম্পর্ক এইসব বিষয় মূর্ত হয়। এছাড়াও লালনের বাউল-ভাবনাকে আধুনিক চিন্তা, যুগচেতনা, মনস্তত্ত্ব এবং দেহতত্ত্বের আলোতে সাজিয়েছেন। কবিতাগুলোতে লোকদর্শনের সঙ্গে নাগরিক দর্শনের একটি সমন্বয় ঘটেছে, এবং কবিতাগুলো একইসঙ্গে মানুষের ইতিহাসের সঙ্গে বর্তমানের একটি সংযোগ ঘটিয়েছে।

মারুফুল ইসলাম (জন্ম ২৯ মার্চ, ১৯৬৩) একজন বাংলাদেশী আধুনিক কবি। তিনি জীবিকাসূত্রে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (বিসিএস)-এর একজন কর্মকর্তা ছিলেন। কমিশনার অব কাস্টমস্‌ হিসেবে ঢাকায় কর্মরত অবস্থায় ২০১৫-তে স্বেচ্ছায় ইস্তফা প্রদান করেন। মারুফুল ইসলাম ১৯৮০-এর দশকে কবিতা লিখতে শুরু করেন। তার কাব্য চেতনায় আধুনিক মানুষের নেতি, হতাশা ও দ্রোহ যেমন রয়েছে তেমনি রয়েছে প্রেম ও রোমান্টিকতা। তার প্রকাশভঙ্গি অনুচ্চ, শব্দচয়ন মনোযোগসমৃদ্ধ। কবি মারুফুল ইসলাম স্বাতন্ত্র্যে সমুজ্জ্বল। তার কবিতায় বাংলাদেশের প্রকৃতি, মানুষের প্রকাশ্য-অপ্রকাশ্য চিন্তাভাবনা, বোধ, অনুভূতি, প্রেম-বিরহ, প্রতিদিনের ছবি, মানুষে-মানুষে সম্পর্ক এই সব বিষয় মূর্ত হয়। তিনি এই সব প্রকাশে নিজস্ব একটি পথ অনুসন্ধান করেছেন ও তার একান্ত স্বাক্ষর রেখেছেন, যা তাকে অন্য কবি থেকে আলাদা করেছে নিঃসন্দেহে। কবিতা লেখা ছাড়াও তিনি প্রবন্ধ রচনা ও সাহিত্য সমালোচনা করে থাকেন। এ ছাড়া তিনি একজন শিশুসাহিত্যিক ও গীতিকার। ২০১৭ সালে তাঁকে বাংলা কবিতায় বিশেষ অবদানের জন্য বাংলা একাডেমি কর্তৃক প্রদত্ত বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কারে ভূষিত করা হয়।

No review found

Write a review

    Bad           Good
content title
Loading the player...
Boighor

Stay Connected