ইন্দ্রজিৎ সরকারের উপন্যাস ‘এইসব কাছে আসা’ পাঠ শেষে প্রথম যে কথাটি মনে আসে তা হচ্ছে—কী অর্থ বহন করে এইসব কাছে আসা? লেখক এই উপন্যাসে কতিপয় মানব-মানবীর কাছে আসার গল্প শুনিয়েছেন। মানুষ মূলত সুখ অন্বেষণকারী প্রাণী। এ তার চিরন্তন স্বভাব। সুখের খোঁজে সে ইতিউতি বিভিন্ন জায়গায় যায়। ঘাটে ঘাটে নাও ভিড়ায়। কিন্তু সবসময় যে সুখ মেলে তা নয়। সুকণ্যা, সৌরভ, ইকিবাল, নন্দিতা ও সজল পাঁচটি চরিত্র , যারা সুখ তালাশকারী। ঘটনা পরম্পরায় নানা কারণে তাদের মনে হয়, অথবা তারা মনে করতে বাধ্য হয়ে যে তারা কেউ সুখী নয়। তারা পরস্পর পরস্পরের সঙ্গে যে সম্পর্কের দ্বারা যুক্ত সেই সম্পর্ক তাদেরকে সুখ এনে দিতে পারছে না। জীবন বড় যাতনা উগরে দেয় এই পাঁচজন মানুষের ঘরে, বারান্দায়, জানালায়, কার্নিশে, বিছানা, বালিশে প্রতিদিন। তাই তারা অন্য সম্পর্কে জড়ায়। সমাজ যে সম্পর্কের নাম দিয়েছে অবৈধ, সেই সম্পর্ক কী শেষ অব্দি সুখ দিতে পেরেছিল সুকন্যা-সৌরভ-কবির-নন্দিতা-সজলের জীবনে? এই একটি প্রশ্নই পাঠককে টেনে নিয়ে যায় উপন্যাসের শেষ পৃষ্ঠা পর্যন্ত।

জন্ম গাইবান্ধার মনদুয়ার গ্রামে। আজিজুল হক কলেজে পড়ার সুবাদে তারুণ্যের অর্ধযুগ কাটিয়েছেন বগুড়ায়। সেখানে নাটকের দল 'রোড থিয়েটার' প্রতিষ্ঠা করেন ২০০২ সালে। সম্পাদনা করেছেন ছড়ার কাগজ ‌'ছন্দ'। উদ্ভিদবিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর। পেশায় সাংবাদিক। লেখালেখি তার নেশা । এক দশক ধরে মূলত গল্প-উপন্যাস লিখলেও একসময় নিবেদিতপ্রাণ হয়ে কবিতা লিখেছেন। পাশাপাশি লিখেছেন ছড়াও। তার ঝরঝরে গদ্যভাষা আর টানটান কাহিনিবিন্যাস পাঠককে নিবিষ্টচিত্ত করে রাখে। ইন্দ্রজিত সরকারের প্রকাশিত বইগুলোর মধ্যে আছে খুন করার পর তাকে ভালোবেসে ফেলি (উপন্যাস/২০২০), এইসব কাছে আসা (উপন্যাস/২০১৯), পতিত পুরুষ (উপন্যাস/২০১৮), ছোট মামার কাণ্ড (কিশোর গল্প সংকল্ন/২০১৭), বল্টুর ভয়ংকর অভিযান (কিশোর উপন্যাস/২০১৬), মানুষখেকোর জঙ্গলে গোয়েন্দা সপ্তক (কিশোর উপন্যাস/২০১৬), স্বর্ণমূর্তি উধাও রহস্য (কিশোর উপন্যাস/২০১৫), দস্যুর জঙ্গলে তোতন (কিশোর উপন্যাস/২০১৪), একা একা একাকার (উপন্যাস/২০১২), জেব্রাক্রসিংয়ের জন্য দুই মিনিট বিরতি (কবিতা/২০০৯) প্রভৃতি। ইন্দ্রজিৎ গাইবান্ধা ও বগুড়ার তিনটি আঞ্চলিক দৈনিকে সাংবাদিকতা করেছেন। ঢাকায় সাংবাদিকতা করছেন ১৫ বছর। দীর্ঘদিন রয়েছেন দৈনিক সমকাল-এর অপরাধ বিষয়ক প্রতিবেদক হিসেবে।

No review found

Write a review

    Bad           Good
content title
Loading the player...
Boighor

Stay Connected