Mrinalini

মৃণালিনী

Product Summery

মৃণালিনী সাহিত্যসম্রাট বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের তৃতীয় উপন্যাস। প্রকাশকাল ১৮৬৯। এই উপন্যাসেই প্রথম স্বদেশপ্রেমকে বিষয়বস্তু করেছিলেন বঙ্কিমচন্দ্র। এই উপন্যাসটি বঙ্কিমচন্দ্র আলিপুরে থাকাকালীন রচনা করেছিলেন। বইটি উৎসর্গ করেছিলেন বন্ধু তথা বিশিষ্ট নাট্যকার দীনবন্ধু মিত্রকে। ন্যাশানাল থিয়েটার ১৮৭৪ সালে এই উপন্যাসের নাট্যরূপ মঞ্চস্থ করে। ১৮৮০ সালে মৃণালিনী হিন্দুস্থানী ভাষায় অনূদিত হয়। মৃণালিনী একটি ঐতিহাসিক উপন্যাস, তুর্কী সেনাপতি ইখতিয়ার উদ্দিন মুহম্মদ বিন বখতিয়ার খলজীর বাংলা আক্রমণের পটভূমিতে রচিত। রাজপুত্র হেমচন্দ্র এবং মৃণালিনীর প্রেমকাহিনীকে কেন্দ্র করে উপন্যাসটি আবর্তিত হয়েছে।

Tab Article

মৃণালিনী সাহিত্যসম্রাট বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের তৃতীয় উপন্যাস। প্রকাশকাল ১৮৬৯। এই উপন্যাসেই প্রথম স্বদেশপ্রেমকে বিষয়বস্তু করেছিলেন বঙ্কিমচন্দ্র। এই উপন্যাসটি বঙ্কিমচন্দ্র আলিপুরে থাকাকালীন রচনা করেছিলেন। বইটি উৎসর্গ করেছিলেন বন্ধু তথা বিশিষ্ট নাট্যকার দীনবন্ধু মিত্রকে। ন্যাশানাল থিয়েটার ১৮৭৪ সালে এই উপন্যাসের নাট্যরূপ মঞ্চস্থ করে। ১৮৮০ সালে মৃণালিনী হিন্দুস্থানী ভাষায় অনূদিত হয়। মৃণালিনী একটি ঐতিহাসিক উপন্যাস, তুর্কী সেনাপতি ইখতিয়ার উদ্দিন মুহম্মদ বিন বখতিয়ার খলজীর বাংলা আক্রমণের পটভূমিতে রচিত। রাজপুত্র হেমচন্দ্র এবং মৃণালিনীর প্রেমকাহিনীকে কেন্দ্র করে উপন্যাসটি আবর্তিত হয়েছে।

Tab Article

বাংলা গদ্যের সম্রাট বলা হয় বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়কে। তার হাতেই প্রথম বাংলা কথাসাহিত্য সাবালক হয়ে ওঠে। নিজস্ব চিন্তা ও সময়কালকে তিনি চিত্রিত করেছেন তার অসামান্য সব লেখায়। তিনি হুগলি কলেজে অধ্যয়নকালে ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্তের সংবাদ প্রভাকর ও সংবাদ সাধুরঞ্জনে লেখা শুরু করেন। তার অনেক লেখা এই দুই পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। পড়া শেষ করে সরকারি চাকরিতে যোগদান করেন। তিনি সারা জীবন তিনি অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে কাজ করেছেন। তিনি বঙ্গদর্শন পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ছিলেন। কমলাকান্ত ছদ্মনামেও লিখতেন তিনি। তার প্রকাশিত উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ হলো- দুর্গেশনন্দিনী, কপালকুণ্ডলা, কৃষ্ণকান্তের উইল,দেবী চৌধুরানী, আনন্দমঠ।

ADD A REVIEW

Your Rating

0 REVIEW for মৃণালিনী !

এই লেখকের আরও বই

এ রকম আরও বই