The Last Girl  (Nadia Murad)

দ্য লাস্ট গার্ল (নাদিয়া মুরাদ)

Product Summery

’দ্য লাস্ট গার্ল : আমার বন্দিদশা এবং ইসলামিক স্টেটের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ইতিবৃত্ত’ -নাদিয়া মুরাদের রোমহর্ষক আত্মজীবনী। ইরাকের উত্তরাঞ্চলীয় ছোট্ট গ্রাম কোচোতে পরিবারের সঙ্গেই থাকতেন নাদিয়া মুরাদ। ২০১৪ সালে ইরাকে নাদিয়াদের গ্রামে হানা দেয় আইএস এবং একুশ বছরের শিক্ষার্থী হিসেবে তার জীবন নিক্ষিপ্ত হয় নরকে। মা ও ভাইদের মৃত্যুর দিকে হাঁটতে বাধ্য করার দৃশ্য প্রত্যক্ষ করেছে সে; আইএস জঙ্গিদের একাংশ অন্য অংশের কাছে বিক্রি করে দেয় তাকে। আইএস জঙ্গিরা তাকে ‘অস্পৃশ্য অবিশ্বাসী’ বলে সম্বোধনের পাশাপাশি প্রায়ই বড়াই করে বলতো ইয়াজিদি নারীদের জয় করে তাদের ধর্মকে ধরণির বুক থেকে নিশ্চিহ্ন করে দেয়া হবে। অপহরণ এবং দাসত্ব গ্রহণে বাধ্য করার সময় নাদিয়ার কন্ঠস্বর স্তব্ধ করার চেষ্টা করেছে আইএস, তাকে অকথ্য নির্যাতন ও ধর্ষণ করেছে, এবং একদিনে হত্যা করেছে তার পরিবারের সাত সদস্যকে। কিন্তু স্তব্ধতাকে প্রত্যাখ্যান করেছেন নাদিয়া মুরাদ, পরবর্তিতে তাদের বিচারের মুখোমুখি করেছেন, ন্যায়বিচারের জন্যে প্রচারণা চালিয়েছেন। জীবন তাকে যত প্রকার তকমা দিয়েছে, সবকিছুকে পরাস্ত করেছেন: অনাথ। ধর্ষিতা। দাসী। উদ্বাস্তু। বরং তিনি নিজেই নতুন পরিচয় সৃষ্টি করেছেন: যুদ্ধজয়ী, ইয়াজিদি বীরাঙ্গনা। নারী অধিকারের প্রবক্তা। নোবেল শান্তিপদক জয়ী। জাতিসংঘের শুভেচ্ছা দূত। এবং এখন, একজন লেখিকা।

Tab Article

’দ্য লাস্ট গার্ল : আমার বন্দিদশা এবং ইসলামিক স্টেটের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ইতিবৃত্ত’ -নাদিয়া মুরাদের রোমহর্ষক আত্মজীবনী। ইরাকের উত্তরাঞ্চলীয় ছোট্ট গ্রাম কোচোতে পরিবারের সঙ্গেই থাকতেন নাদিয়া মুরাদ। ২০১৪ সালে ইরাকে নাদিয়াদের গ্রামে হানা দেয় আইএস এবং একুশ বছরের শিক্ষার্থী হিসেবে তার জীবন নিক্ষিপ্ত হয় নরকে। মা ও ভাইদের মৃত্যুর দিকে হাঁটতে বাধ্য করার দৃশ্য প্রত্যক্ষ করেছে সে; আইএস জঙ্গিদের একাংশ অন্য অংশের কাছে বিক্রি করে দেয় তাকে। আইএস জঙ্গিরা তাকে ‘অস্পৃশ্য অবিশ্বাসী’ বলে সম্বোধনের পাশাপাশি প্রায়ই বড়াই করে বলতো ইয়াজিদি নারীদের জয় করে তাদের ধর্মকে ধরণির বুক থেকে নিশ্চিহ্ন করে দেয়া হবে। অপহরণ এবং দাসত্ব গ্রহণে বাধ্য করার সময় নাদিয়ার কন্ঠস্বর স্তব্ধ করার চেষ্টা করেছে আইএস, তাকে অকথ্য নির্যাতন ও ধর্ষণ করেছে, এবং একদিনে হত্যা করেছে তার পরিবারের সাত সদস্যকে। কিন্তু স্তব্ধতাকে প্রত্যাখ্যান করেছেন নাদিয়া মুরাদ, পরবর্তিতে তাদের বিচারের মুখোমুখি করেছেন, ন্যায়বিচারের জন্যে প্রচারণা চালিয়েছেন। জীবন তাকে যত প্রকার তকমা দিয়েছে, সবকিছুকে পরাস্ত করেছেন: অনাথ। ধর্ষিতা। দাসী। উদ্বাস্তু। বরং তিনি নিজেই নতুন পরিচয় সৃষ্টি করেছেন: যুদ্ধজয়ী, ইয়াজিদি বীরাঙ্গনা। নারী অধিকারের প্রবক্তা। নোবেল শান্তিপদক জয়ী। জাতিসংঘের শুভেচ্ছা দূত। এবং এখন, একজন লেখিকা।

Tab Article

ADD A REVIEW

Your Rating

0 REVIEW for দ্য লাস্ট গার্ল (নাদিয়া মুরাদ) !

এ রকম আরও বই