এইসব কথকতার হৃদয়ে মুক্তিযুদ্ধ—যে মুক্তিযুদ্ধের শুরু ও শেষ কেবল একাত্তরেই নয়। মুক্তির চেতনা এসেছিল একাত্তরের অনেক আগে এ যেমন আমরা জানি, তেমনি জানি সেটিকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য একরকম নিত্যসংগ্রামের প্রয়োজন ফুরিয়ে যায়নি। সবক’টি লেখায় এ কথাই বলা আছে, আভাসে হলেও। জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত লড়াইয়ের ময়দানে মুক্তিযুদ্ধ করতে পারেননি। তিনি তখন দেশের বাইরে, সেখানে আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধের পক্ষে আন্তর্জাতিক জনমত সংগঠিত করেছেন। দেশের ভেতরে ব্যক্তিগত ক্ষয়ক্ষতিও তো তাঁর কম হয়নি। মুক্তিযুদ্ধের শরিক তিনি এভাবেই, সমস্ত মন-প্রাণ দিয়ে, বোধ ও আবেগ দিয়ে। জ্যোতিপ্রকাশের পাঠকমাত্রই জানেন, তাঁর রচনার গ্রন্থনা, গল্পের কারুকাজ ভিন্ন চরিত্রের, অন্য মাত্রার। সেখানে ঘটনার ঘনঘটা ও অনুপুঙ্খিতা থাকে না, তিনি বিছিয়ে রাখেন সংকেত। ফিকশন ও ফ্যান্টাসির গাঁটছড়া বাঁধেন। কখনো কাহিনির বয়ানে থাকে আত্মজৈবনিকতা, গল্পবীজের সঙ্গে সঙ্গত করে স্বগতকথন। এ সকলই তাঁর কাহিনি নির্মাণের নিজস্ব সীলমোহর। যাঁরা সহৃদয় হৃদয়সংবেদী রসগ্রাহী তাঁর গল্পের, তাঁরা সকলেই অবগত আছেন জ্যোতির এই গল্পচারিত্র্যে। ষাটের অমিতশক্তি এই গল্পকার, প্রায় কিংবদন্তীয়, আবার ফিরে এস

জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত (জন্ম : ১ সেপ্টেম্বর, ১৯৩৯) একজন বাংলাদেশী সাহিত্যিক, গল্পকার ও ঔপন্যাসিক। ষাটের দশকে গল্প দিয়ে তার সাহিত্যিক জীবন শুরু হয়েছিল। তার গল্পে উঠে এসেছে সামাজিক ও রাজনৈতিক বাস্তবতা, জীবনদর্শন, ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ, এমনকি আধুনিক জীবনযাত্রা।

No review found

Write a review

    Bad           Good
content title
Loading the player...
Boighor

Stay Connected