Minimalist

মিনিমালিস্ট

Product Summery

দীর্ঘ চার বছর পর আবার রুমি এবং মারুফ একসাথে জড়িয়ে গেল এক অদ্ভূত রহস্য মিমাংসায়, এক সুদীর্ঘ অনুসন্ধানে। যে অনুসন্ধানে মিশে আছে সহস্র বছরব্যাপী গোপনে উচ্চারিত প্রশ্ন, মূল্যবান জীবন এবং অবিশ্বাস্য ঐতিহাসিক সব স্মারক। এর সুবিস্তৃত পটভূমিতে ওরা খুঁজে ফেরে এমন এক সত্য, যা ধামাচাপা দিয়ে দাঁড়িয়ে আছে মিথ্যা আর ভ্রান্তিতে মোড়া দৈত্যাকার এক মহীরুহ। ‘মিনিমালিস্ট’ একটি রহস্য উপন্যাস, নানা ঘটনা উপ-ঘটনার সুদীর্ঘ যাত্রা। কিন্তু এ এক উপলক্ষ্যও, বৃহৎ ও মহতী এক বোধের। সবকালে সবযুগে মহামানবেরা যে পথে হেঁটেছেন, তাঁদের দর্শনকে নতুন করে ধারণের এক প্রচেষ্টা। সে জীবনবোধে আপনাকে স্বাগতম!

আরও পড়ুন >

Tab Article

দীর্ঘ চার বছর পর আবার রুমি এবং মারুফ একসাথে জড়িয়ে গেল এক অদ্ভূত রহস্য মিমাংসায়, এক সুদীর্ঘ অনুসন্ধানে। যে অনুসন্ধানে মিশে আছে সহস্র বছরব্যাপী গোপনে উচ্চারিত প্রশ্ন, মূল্যবান জীবন এবং অবিশ্বাস্য ঐতিহাসিক সব স্মারক। এর সুবিস্তৃত পটভূমিতে ওরা খুঁজে ফেরে এমন এক সত্য, যা ধামাচাপা দিয়ে দাঁড়িয়ে আছে মিথ্যা আর ভ্রান্তিতে মোড়া দৈত্যাকার এক মহীরুহ। ‘মিনিমালিস্ট’ একটি রহস্য উপন্যাস, নানা ঘটনা উপ-ঘটনার সুদীর্ঘ যাত্রা। কিন্তু এ এক উপলক্ষ্যও, বৃহৎ ও মহতী এক বোধের। সবকালে সবযুগে মহামানবেরা যে পথে হেঁটেছেন, তাঁদের দর্শনকে নতুন করে ধারণের এক প্রচেষ্টা। সে জীবনবোধে আপনাকে স্বাগতম!

Tab Article

জন্ম ও বেড়ে ওঠা ঢাকায়। বর্তমানে চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত। রহস্য আশ্রয়ী গল্প-উপন্যাস ও শিশু-কিশোর সাহিত্য পড়তে ও লিখতে আগ্রহী। সাহিত্য-পুরস্কার : এইচএসবিসি - কালি ও কলম তরুণ কথাসাহিত্যিক পুরস্কার ২০১৩। প্রকাশিত উল্লেখযোগ্য বই: ভেন্ট্রিলোকুইস্ট, মিনিমালিস্ট, বিলু কালু ও গিলুদের রোমাঞ্চকর অভিযান, ডক্টর কিজিল, ভাজা মাছের উল্টো পিঠের রহস্য ।

8 REVIEW for ' মিনিমালিস্ট'

মিনিমালিজম কী বা মিনিমালিস্ট কে? এই প্রশ্নের উত্তর আপনারা বিস্তারিতভাবে বইতে পেয়ে যাবেন। যদি আমি সংক্ষেপে ধারণা দিই, তাহলে মিনিমালিজম হলো স্পষ্ট এবং উদ্দেশ্যমূলকভাবে ওই সকল ইচ্ছা দ্বারা চিহ্নিত জীবনযাপন প্রক্রিয়া, যা আমাদের নিকট সবচেয়ে বেশি মূল্যবান। মিনিমালিজম হচ্ছে মিনিমালিস্টদের একটি ধর্ম। এই মিনিমালিজমের সাথে লেখক খালিস্তান, টাওয়ার অব লন্ডনে থাকা কোহ-ই-নূর এবং দারিয়া-ই-নূর-এর ইতিহাস নিয়ে একটি স্বনির্ভর গল্প ফেঁদেছেন। যা আপাতদৃষ্টে একটি থ্রিলার গল্প হলেও, ইতিহাস ও দর্শন বিচারে এই উপন্যাসটি নিজ জায়গায় মহিমান্বিত। রাজনীতি ও ষড়যন্ত্র এই বইয়ের মূল আকর্ষণ থেকে কোনোভাবে পিছিয়ে ছিল না। প্রতিটি অধ্যায়ে এই দুইটি দিক প্রস্ফুটন হচ্ছিল বৃহদাকারে। পুরো উপন্যাসে শিখ ধর্ম ছিল মূল কেন্দ্রস্থল। লেখক বেশ সহজভাবে শিখ ধর্মের একাল-সেকাল বর্ণনা করেছেন গল্প আকারে। পৃথিবীতে প্রতিটি ধর্মের যে স্বকীয়তা রয়েছে এবং এই স্বকীয়তার পেছনের কলকাঠি নাড়া গুরু এবং সে-ই গুরু বা ব্যক্তিবর্গের মধ্যে যে মিল সেই বিষয় নিয়েও যৌক্তিক ব্যাখা দাঁড়া করিয়েছেন লেখক ❛মিনিমালিস্ট❜ উপন্যাসে৷ এইবার যদি আইন ও অপরাধী নিয়ে বলি, তাহলে এই গল্পে অপরাধীরা বারবার টেক্কা দিয়েছে আইন নামক বিষয়কে। অর্থাৎ নিয়ম বা বিধিনিষেধের তোয়াক্কা না করে, চরিত্রগুলো নিজেদের আইন নিজেরাই তৈরি করে নিয়েছে। আইন এই গল্পে একেবারেই পর্যুদস্ত। ❛মিনিমালিস্ট❜ উপন্যাসে যিশু খ্রিষ্ট, গৌতম বুদ্ধ, মুসা (আ:)-সহ অনেক মহাপুরুষের দর্শন শাস্ত্র ও এপিকিউরাস, অ্যারিস্টোটল, সক্রেটিস, প্রোটোগোরাস-এর মতো দার্শনিকদের ভূয়োদর্শিতা নিয়ে বেশ ভালোই আলোকপাত করা হয়েছে। মানুষের প্রয়োজনীয়তা, নারীর প্রতি দৃষ্টিভঙ্গি, মানবজাতির দুর্দশার কারণ, সন্ন্যাস গ্রহণ ও সাইকোলজিক্যাল প্যারাডক্সের মতো বিষয় নিয়ে খোলামেলা আলোচনা রয়েছে পুরো উপন্যাস জুড়ে। ❛মিনিমালিস্ট❜ উপন্যাসের ঘনত্ব দুর্গম মনে হলেও, কাহিনিতে ঢুকে গেলে তখন এই জ্ঞান কপচানো বিষয়গুলো বেশ সহজ মনে হবে। বর্তমান সমাজ ও ধর্ম নিয়ে প্রচলিত কারণগুলো তখন অকারণ ও অহেতুক মনে হবে। কীসের বিরুদ্ধে লড়াই করছি, কোন অস্তিত্ব নির্ভর করে বেঁচে আছি, সঠিক পথে পরিচালিত হচ্ছি কি-না; এইরকম অনেক চিন্তা মাথায় ঘুরপাক খেতে থাকবে। যদি এই উপন্যাসের মাহাত্ম্য উদ্ধার করতে পারেন তবেই; না-হয় সামসময়িক কোনো বইয়ের মতো রসকষহীন মনে হবে। ❛মিনিমালিস্ট❜ উপন্যাস লেখকের ❛ভেন্ট্রিলোকুইস্ট❜ থেকেও কয়েক ধাপ এগিয়ে থাকবে। পূর্বের যে কমতি ছিল, সেগুলো বেশ ভালোভাবে পুষিয়ে দিয়েছেন এই উপন্যাসে৷ শুরু থেকে গল্পে হুকড হওয়ার মতো ইতিহাস রয়েছে, ঘটনা ঘটেছে। পুরো গল্পে ধর্মীয় বিষয়বস্তু, দর্শনশাস্ত্র, ষড়যন্ত্র থাকলেও লেখনশৈলী ও বর্ণবিন্যাসের কারুকার্যে তা আলাদাভাবে কান্তি সৃষ্টি করেছে। সব মিলিয়ে জ্ঞান অন্বেষণ করা পাঠকের জন্য এই উপন্যাস বেশ প্রাচুর্যে পূর্ণ বটে।

Peal Roy Partha 2022-02-02 11:44:39

মারুফ রুমির এই ২য় জার্নিও আমার কাছে লার্নিং পয়েন্ট অফ ভিউ থেকে অসাধারণ লেগেছে। লেখক তার সকল জ্ঞ্যান সম্ভবত এই বইয়ে ঢেলে দিয়েছেন। শিখ জাতির ইতিহাস, কোহিনূর হীরা, আহসান মঞ্জিল, মূসা (আঃ), ঈশা (আঃ), ইহুদী, সাবমিটার, মিনিমালিস্ট মিলে বিশাল কলেবরের এই বইটা এক কথায় ব্যাপক তথ্য সমৃদ্ধ এক জার্নি। সত্যি বলতে আমি নিজে অনেক অনেক কিছুই নতুন করে জানতে পেরেছি এই বইয়ের মাধ্যমে। তবে দৃষ্টিকটু ভাবেই এই বইয়েও রুমীর সবজান্তা ভাবটা আরো বেশী চোখে লেগেছে। বিশেষ করে কিছু জায়গায় যেখানে নৃতাত্ত্বিক হিসাবে মারুফের সেই ব্যাপারে বেশী জানার কথা ছিলো, সেখানে উলটা সবকিছুই রুমীর দিক থেকে জানানো হয়েছে। এটা একদমই এবসার্ড লেগেছে আমার কাছে। এমন হলে দু'জনের প্রফেশনাল সঙ্গাটাই লেখক বদলে দিতে পারতেন। তবে এই একটা ব্যাপার ছাড়া আমার কাছে ব্যক্তিগতভাবে এই বইটা অসম্ভব ভালো লেগেছে। পড়ার সময় রুমির এই সবজান্তা বিষয়টা বিরক্ত লাগলেও, এখন লেখার সময় পিছনে ফিরে মনে হচ্ছে মিনিমালিস্ট একটা অসাধারন থ্রিলার যার পরতে পরতে বিভিন্ন ইতিহাসের শিক্ষা দেয়া হয়েছে। এই বইটাতে মারুফ রুমীকে রহস্য উদঘাটনের জন্য শেষ পর্যন্ত পরিশ্রম করে যেতে হয়েছে। প্রতিটা ব্যাপারে জানতে এবং খোঁজ নিতে যেতে হয়েছে। এইসব বিষয়গুলো ভালো লেগেছে। একের পর এক বাঁধা এসেছে, রহস্যের পর রহস্যের অবতারণ ঘটেছে বইয়ে। আর শেষে এসে যেভাবে সব সুতোগুলোকে জোড়া লাগিয়েছেন, তা বেশ প্রশংসার দাবী রাখে। আমি লেখক মাশুদুল হকের কাছে কৃতজ্ঞ থাকবো এতো কিছু এক বইয়ের মাধ্যমে যতোটা সম্ভব বিশদভাবে জানিয়ে দেয়ার জন্য। এবং অনুরোধ থাকবে মারুফ রুমির এই জার্নিকে সামনে আরো এগিয়ে নেয়ার জন্য। ব্যক্তিগত রেটিংঃ ৯/১০

Zakaria Minhaz 2022-01-21 21:00:16

কোহ-ই-নূর কি তা জানেন? আর দরিয়া-ই-নূর? আদতে ইতিহাসে বলা আছে দরিয়া-ই-নূর হচ্ছে কোহ-ই-নূর’র ছোটভাই! দরিয়া-ই-নূর অর্থ হচ্ছে আলোর সমুদ্র। আর কোহ-ই-নূর হচ্ছে পারস্য সম্রাটের দেয়া একটা নাম। বিশ্বের সবচেয়ে দামী ও মূল্যবান রত্নের নাম কোহিনূর। এটা টাকা দিয়ে কেবা যায় না। এটা কিনতে হয়.... শিখ সম্প্রাদায়ের একজন বিখ্যাত গুরু রণজিৎ সিং কোহিনূরের সাথে দরিয়া-ই-নূর'ও পরিধান করতেন। তাই হয়তো এটাকে কোহিনূরের ভাই বলা হয়। তাই কোহিনূরের নামের সাথে মিলিয়ে এটার নাম রাখা হয় ‘দরিয়া-ই-নূর’ ঢাকার নবাব খাজা আলিমুল্লাহ এটা ব্রিটিশদের থেকে একটা নিলামে কেনেন। নবাবদের অতি গৌরবের একটা ব্যাপার ছিল এ হিরা। কারণ কোহিনূরের মতই এই হিরার শুধু মূল্যমানই না, আছে সমৃদ্ধ এক ইতিহাস। গবেষকরা এটাকে কোহিনূরের সিস্টার ডায়মন্ড হিসেবে দেখেন। তাই দরিয়া-ই-নূর'কে কোহিনূরের ছোটভাই বলা হয়।

MD Azmayn Mahtab Sifat 2022-01-14 20:28:51

বইটি এককথায় অসাধারণ! ভেন্ট্রিলোকুইস্ট ভাল ছিল, কিন্তু তার চাইতেও অনেকগুণ বেশি দারুণ কাজ হয়েছে এখানে। ইতিহাস, ধর্ম, স্থাপত্য, মিথ, প্রকৃতি — কী নেই এতে! বইটিতে অনেক অনেক তথ্য আছে, যার কিছু কিছু আগে জানতাম, কিন্তু বেশিরভাগই জানা ছিল না। কিন্তু লেখক এমনভাবে তথ্যগুলো উপস্থাপন করেছেন যে, পড়তে গিয়ে একঘেয়েমি বা বিরক্তি আসেনি কোথাও। সাধারণত তথ্যে ভরপুর বই একটু স্লো হয়, কিন্তু এই বইয়ের স্টোরি ফাস্ট পেইসড ছিল, তাই মনোযোগ ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে। আর কাশ্মীরের সৌন্দর্যের বর্ণনা এতটাই জীবন্ত ছিল যে, পড়তে পড়তে মনে হচ্ছিল আমি ওখানেই আছি। ছোটবেলায় প্রায়শই এমন হতো যে, বই পড়তে পড়তে আমিও ঘুরে আসতাম ওইসব জায়গা থেকে, কিন্তু বড় হওয়ার পর বইগুলোতে কেন যেন সেই অনুভূতি পাইনি অনেকদিন। এই বই যা অনুভব করিয়েছে, বিভিন্ন মুভিতে কাশ্মীর দেখেও তা পাইনি আমি। লেখক যেভাবে একদিকে একের পর এক রহস্য তৈরি করেছেন, অন্যদিকে সেগুলোর জটও ছাড়িয়েছেন, প্রায় সমানতালেই। এই দিকটা খুব ভাল লেগেছে। গল্পের কেন্দ্রীয় চরিত্র রুমিকে নিয়ে অনেকের রিভিউতে কিছু আপত্তি দেখেছি। তবে সাংবাদিক হয়েও খুব ভাল স্মৃতিশক্তি, নানান বিষয়ে জ্ঞান এবং ভাল পর্যবেক্ষণ ক্ষমতা থাকা অসম্ভব বলে মনে হয় না আমার। বইটি আমার প্রিয় বইগুলোর মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে। পড়া শেষ হবার পরও মুগ্ধতার রেশ রয়ে গেছে, খুব তাড়াতাড়ি তা কাটবেও না বোধহয়। "মিনিমালিস্ট" নিঃসন্দেহে বাংলা থ্রিলার জগতে মাস্টারপিস হয়ে থাকবে। লেখকের জন্য কৃতজ্ঞতা এবং শুভকামনা। রুমি-মারুফ জুটির পরবর্তী অভিযানের সঙ্গী হওয়ার অপেক্ষায় থাকলাম।

Ummey Kulsum Sadia 2022-01-13 12:40:05

দীর্ঘ চার বৎসর পর আবার রুমি এবং মারুফ একসাথে জড়িয়ে গেল এক অদ্ভূত রহস্য মীমাংসায়, এক সুদীর্ঘ অনুসন্ধানে । যে অনুসন্ধানে মিশে আছে সহস্রবছর ব্যাপী গোপনে উচ্চারিত প্রশ্ন, মূল্যবান শত শত জীবন এবং অবিশ্বাস্য ঐতিহাসিক সব স্মারক । এর সুবিস্তৃত পটভূমিতে ওরা খুঁজে ফেরে এমন এক সত্য যা ধামাচাপা দিয়ে দাঁড়িয়ে আছে মিথ্যা আর ছলনায় মোড়া দৈত্যাকার মহীরুহ । মিনিমালিস্ট একটি রহস্য উপন্যাস, নানা ঘটনা উপঘটনার সুদীর্ঘ যাত্রা । কিন্তু এ এক উপলক্ষ্যও, বৃহৎ ও মহতী এক বোধের । সবকালে সবযুগে মহামানবেরা যে পথে হেঁটেছেন, তাঁদের দর্শনকে নতুন করে ধারনের এক প্রচেষ্টা । সে জীবনবোধে আপনাকে স্বাগতম ! পাঠ প্রতিক্রিয়াঃ ঢাকায় একইদিনে দুইটা মৃতদেহ পাওয়া যায়। দরজা-জানালা ভেতর থেকে আটকানো। গায়ে সামান্য আঁচড়ের দাগটুকু নেই। রুমির মতে এগুলো খুন। কিন্তু তার জন্য প্রমাণ চাই। এই প্রমাণের খোঁজই মারুফ-রুমিকে দাঁড়া করায় এক বিশাল ষড়যন্ত্রের সামনে। যার পরতে পরতে জড়িয়ে আছে ভারতবর্ষের প্রাচীন ইতিহাস, সংঘবদ্ধ বিশ্বাস-অবিশ্বাস, আর নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রতিষ্ঠার বাসনা। বেশ ভালো ছিল রুমি-মারুফের এবারের যাত্রাটা। ভেন্ট্রিলোকুইস্টের থেকে এটা বেটার এমনটা বলতে পারছি না। আমার কাছে দুটোই সমান তালে উপভোগ্য মনে হয়েছে। বইয়ের নাটকীয় সূচনার পর কাহিনী কোথাও ঝুলে যায়নি তেমন একটা। তবে তথ্যগুলো পড়ার সময় কাহিনী ধীর বলে মনে হতে পারে। ছোট ছোট চাপ্টার আর পরিমিত ক্লিফ হ্যাঙ্গার পড়ার আগ্রহ বজায় রাখতে সাহায্য করেছে।

Tarik Mahtab Siam 2022-01-12 10:37:15

পাঠক হিসেবে আমার কিছু সীমাবদ্ধতা রয়েছে। সেই সীমাবদ্ধতা নিয়েই মাশুদুল হকের প্রথম বইটি (ভেন্ট্রিলোকুইস্ট) পড়েছিলাম। অভিজ্ঞতা মন্দ নয়। দ্বিতীয় বই ‌'মিনিমালিস্ট'-এর হার্ডকপি সংগ্রহ করা সম্ভব হয় নি। সফট কপি (বইঘর) পেয়ে মোটামুটি প্রস্তুতি নিয়ে পড়া শুরু করি। কী আর বলবো, গল্প শেষ করতে মোটামুটি মাসখানেক লেগে গেলো ব্যক্তিগত নানারকম অসঙ্গতির কারণে। অবশেষে বইটি পড়া এমন সময়ে শেষ করেছি, যখন 'বইঘর' থেকে রিভিউ-এর আহবান করা হয়েছে। বিষয়টা ভালো লাগলো। 'মিনিমালিস্ট' কী ধরনের বই? পড়তে পড়তে অনেক কিছুই মনে হলো। এটাকে নির্দিষ্ট কোনো ছকে ফেলা যাবে না। থ্রিলার তো অবশ্যই। কিন্তু ইতিহাস বা দর্শনেরও একটা পাঠ হয়ে যায় বইটি পড়তে পড়তে। কাহিনি বিন্যাস, চরিত্রগুলোর যোগসূত্র, বর্ণনাভঙ্গি, ছোট বা বড় বাক্যের ব্যবহার- বেশ চমৎকার। একইসঙ্গে এটি একটি ভ্রমণ কাহিনি, অন্তত আমার কাছে। কোথায় কোথায় ঘুরে বেড়াইনি পড়ার সময়! ‌‌''...পাহাড়ি রাস্তা ধীরে ধীরে মনে হচ্ছে বিপজ্জনক হয়ে উঠছে আরো, তার চেয়েও বেশি বিপজ্জনক ভাবে ডেভিড ছেলেটা গাড়ি চালিয়ে যাচ্ছে। কাশ্মীরের অপার সৌন্দর্য ঢেকে আছে রাতের আঁধারে। মারুফ গাড়ির উইন্ডো দিয়ে তাকিয়ে দেখলো, জ্যোৎস্না-বিধৌত অবারিত পাহাড়ি প্রান্তর দেখা যাচ্ছে। দূরে পাহাড়ি অবয়বের পেছনের নক্ষত্রবীথি শোভিত আকাশ। এ দূর দেশে কোহিনূরের মতো রত্ন উদ্ধারের জন্য ছুটছি আমরা!...'' সত্যি উপন্যাসের এই বর্ণনার মতোই পাঠকদের অবস্থা। অনন্ত এক রহস্য আবিস্কারের নেশায় আমাদের এই ছুটে চলা। একটির জট খোলে তো আরেক রহস্য আরও বেশি জট পাকিয়ে অপেক্ষা করে। রহস্য উন্মোচিত হওয়ার আগে মানুষ কতো অসহায়, হায়! বইটি লিখতে গিয়ে মাশুদুল হক যেসব বই-এর রেফারেন্স নিয়েছেন ও তথ্যসূত্র হিসেবে উল্লেখ করেছেন, সেগুলোর অধিকাংশই পড়া হয় নি। একটি মানসম্পন্ন সফল উপন্যাসের জন্য লেখকের এই ত্যাগ অবিশ্বাস্য। তাঁর নতুন বই আরও বেশি বেশি পাঠকপ্রিয় হোক।

Ruhin Karim 2022-01-12 04:39:03

very good

sakib 2021-11-20 00:33:30

এই বইটা অদ্ভূত। অনেক ভালো লেগেছে। এই লেখকের আরও বই পড়তে চাই।

Nishan Chowdhury 2021-09-08 11:19:24

ADD A REVIEW

Your Rating


content title
Loading the player...