Phoolmoni o Korunar Biboron

ফুলমণি ও করুণার বিবরণ

Product Summery

হানা ক্যাথেরীন মুলেন্স একজন বিদেশি ভাষার মানুষ যিনি প্রথম বাংলায় উপন্যাস লিখেছেন। ‘ফুলমণি ও করুণার বিবরণ’ উপন্যাসটি ১৮৫২ সালে প্রথম প্রকাশিত হয়। যদিও বইটি অনুবাদ বলেও অনেকে দাবী করেছেন। বইটিতে বাঙালি খ্রিষ্টান সমাজের যে-পরিচয় এতে ফুটে উঠেছে, তা কতটা মূল বইয়ের সাথে সম্পর্কিত আর কতটা লেখিকার পর্যবেক্ষণজাত, তা বলা মুশকিল। তবে এটা বলা যায় যে তিনি নিম্নবিত্ত মানুষের জীবনযাত্রা সম্পর্কে ভালোই অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করেছিলেন। কোনো কোনো জায়গায় লেখিকা চমৎকারভাবে মানবচরিত্র অঙ্কন করেছেন। যেদিন মাতাল স্বামী ঘরে ফিরে স্ত্রীর কাছ থেকে তিরস্কারের বদলে সহানুভূতি লাভ করল, সেদিন করুণার এমত নূতন ব্যবহার দেখিয়া তাহার মাতাল স্বামী তাহাকে কিছু মাত্র চিনিতে না পারিয়া বিছানাতে শুইয়া আপনা আপনি বলিতে লাগিল, এ বেটী বড় ভাল মানুষ, ইহার ঘরে বারবর আসিব।’ সুকুমার সেন বলেছেন, বইটি আকারে ও প্রকারে উপন্যাসের মতো। বাংলায় উপন্যাসোপম প্রথম আখ্যানরূপেই হয়তো ‘ফুলমণি ও করুণার বিবরণ’ সাহিত্যের ইতিহাসে স্মরণীয় হয়ে থাকবে ।

Tab Article

হানা ক্যাথেরীন মুলেন্স একজন বিদেশি ভাষার মানুষ যিনি প্রথম বাংলায় উপন্যাস লিখেছেন। ‘ফুলমণি ও করুণার বিবরণ’ উপন্যাসটি ১৮৫২ সালে প্রথম প্রকাশিত হয়। যদিও বইটি অনুবাদ বলেও অনেকে দাবী করেছেন। বইটিতে বাঙালি খ্রিষ্টান সমাজের যে-পরিচয় এতে ফুটে উঠেছে, তা কতটা মূল বইয়ের সাথে সম্পর্কিত আর কতটা লেখিকার পর্যবেক্ষণজাত, তা বলা মুশকিল। তবে এটা বলা যায় যে তিনি নিম্নবিত্ত মানুষের জীবনযাত্রা সম্পর্কে ভালোই অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করেছিলেন। কোনো কোনো জায়গায় লেখিকা চমৎকারভাবে মানবচরিত্র অঙ্কন করেছেন। যেদিন মাতাল স্বামী ঘরে ফিরে স্ত্রীর কাছ থেকে তিরস্কারের বদলে সহানুভূতি লাভ করল, সেদিন করুণার এমত নূতন ব্যবহার দেখিয়া তাহার মাতাল স্বামী তাহাকে কিছু মাত্র চিনিতে না পারিয়া বিছানাতে শুইয়া আপনা আপনি বলিতে লাগিল, এ বেটী বড় ভাল মানুষ, ইহার ঘরে বারবর আসিব।’ সুকুমার সেন বলেছেন, বইটি আকারে ও প্রকারে উপন্যাসের মতো। বাংলায় উপন্যাসোপম প্রথম আখ্যানরূপেই হয়তো ‘ফুলমণি ও করুণার বিবরণ’ সাহিত্যের ইতিহাসে স্মরণীয় হয়ে থাকবে ।

Tab Article

ADD A REVIEW

Your Rating

0 REVIEW for ফুলমণি ও করুণার বিবরণ !

এ রকম আরও বই