Heerajhil

হিরাঝিল

Product Summery

বনহুর মুহূর্ত বিলম্ব না করে ছাদের রেলিং বেয়ে এগুতে লাগলো। একে তো রাত, তারপর সম্পূর্ণ অজানা, অচেনা জায়গা। ভাগ্যিস জ্যোছনা ছিলো, তাই সব স্পষ্ট দেখতে পাচ্ছিলো বনহুর! শামস হুসাইন যখন একটি এগারো তলার পাইপ বেয়ে উপরে উঠে চলেছে, তখন বনহুর তার রিভলভার উদ্যত করে ধরলো। সঙ্গে সঙ্গে তার মন বললো, ‘না না, ওকে হত্যা করো না, তাহলে হীরাঝিলের গভীর রহস্য উদঘাটন হবে না...।’ বনহুর রিভলভারসহ হাতখানা নামিয়ে নিলো। পরক্ষণেই রিভলভার প্যান্টের পকেটে রেখে তরতর করে পাইপ বেয়ে উপরে উঠে চললো।

আরও পড়ুন >

Tab Article

বনহুর মুহূর্ত বিলম্ব না করে ছাদের রেলিং বেয়ে এগুতে লাগলো। একে তো রাত, তারপর সম্পূর্ণ অজানা, অচেনা জায়গা। ভাগ্যিস জ্যোছনা ছিলো, তাই সব স্পষ্ট দেখতে পাচ্ছিলো বনহুর! শামস হুসাইন যখন একটি এগারো তলার পাইপ বেয়ে উপরে উঠে চলেছে, তখন বনহুর তার রিভলভার উদ্যত করে ধরলো। সঙ্গে সঙ্গে তার মন বললো, ‘না না, ওকে হত্যা করো না, তাহলে হীরাঝিলের গভীর রহস্য উদঘাটন হবে না...।’ বনহুর রিভলভারসহ হাতখানা নামিয়ে নিলো। পরক্ষণেই রিভলভার প্যান্টের পকেটে রেখে তরতর করে পাইপ বেয়ে উপরে উঠে চললো।

Tab Article

রোমেনা আফাজ প্রখ্যাত ঔপন্যাসিক। তাঁর জন্ম বগুড়া জেলার শেরপুর থানায় ১৯২৬ সালে । তিনি ‘দস্যু বনহুর’ সিরিজের জন্য বাঙালি পাঠক সামজের কাছে বেশ পরিচিত। রোমেনা আফাজ লেখালেখি শুরু করেন শৈশব থেকেই। ছোটগল্প, কবিতা, কিশোর উপন্যাস, সামাজিক উপন্যাস, গোয়েন্দা সিরিজ ও রহস্য সিরিজ রচনা করেছেন তিনি। বাবা ছিলেন পুলিশ অফিসার। তার মুখে অপরাধ ও অপরাধীদের রোমহর্ষক কথা শুনে রোমাঞ্চকর গল্পের প্রতি মোহ সৃষ্টি হয়। তার লেখা ‘দস্যু বনহুর’ ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করে। এর জন্যই তিনি বিখ্যাত হন। সাহিত্য ও শিল্পকলায় অসাধারণ অবদানের জন্য ২০১০ সালে স্বাধীনতা পুরস্কারে ভূষিত করা হয় রোমেনা আফাজকে।

0 REVIEW for ' হিরাঝিল'

No review found

ADD A REVIEW

Your Rating


content title
Loading the player...