Shesh Golpo

শেষ গল্প

Product Summery

রাফাত সাহেব ছোটবেলা থেকেই খুব বই পড়তে পছন্দ করতেন। অবশ্য উনি একনিষ্ঠ পাঠক ছিলেন, লেখালেখির ব্যাপারটা মাথায় ছিল না। বন্ধু আদিল হাসানই লেখালেখির ব্যাপারটা ওনার মাথায় ঢুকিয়েছেন। বন্ধুবর বলেছিলেন, “দোস্ত তুই এত পড়িস। লিখলেই পারিস। প্রকাশের দায়িত্ব আমার।” কথাটি হয়তো উনি নিছকই কথার ছলেই বলেছিলেন কিন্তু রাফাত সাহেবের মাথায় ব্যাপারটি ঢুকে গেল। শুধু যে ঢুকলো তা না বরং রক্তচোষা জোঁকের মতো ঢুকে গেল। রক্তচোষা না বলে বলা ভালো মগজচোষা জোঁক। মাথার মধ্যে মগজচোষা জোঁকটি প্রতি মিনিটে মিনিটে টোকা দিতে লাগলো। মিহি স্বরে বলতো যেন, ‘লিখতে হবে, লিখতে হবে। লিখতেই হবে। কী ব্যাপার এখনও লেখা শুরু করছেন না কেন?’ কিন্তু বিচিত্র কোনো কারণে রাফাত সাহেব লিখতে পারেন না। তার সৃষ্ট চরিত্রগুলো ওনার নিয়ন্ত্রণে থাকে না। ওরা হয়ে যায় স্বাধীন সত্ত্বা। অবশেষে কী তিনি লিখতে পারবেন? কী ছিল সেই লেখা!

Tab Article

রাফাত সাহেব ছোটবেলা থেকেই খুব বই পড়তে পছন্দ করতেন। অবশ্য উনি একনিষ্ঠ পাঠক ছিলেন, লেখালেখির ব্যাপারটা মাথায় ছিল না। বন্ধু আদিল হাসানই লেখালেখির ব্যাপারটা ওনার মাথায় ঢুকিয়েছেন। বন্ধুবর বলেছিলেন, “দোস্ত তুই এত পড়িস। লিখলেই পারিস। প্রকাশের দায়িত্ব আমার।” কথাটি হয়তো উনি নিছকই কথার ছলেই বলেছিলেন কিন্তু রাফাত সাহেবের মাথায় ব্যাপারটি ঢুকে গেল। শুধু যে ঢুকলো তা না বরং রক্তচোষা জোঁকের মতো ঢুকে গেল। রক্তচোষা না বলে বলা ভালো মগজচোষা জোঁক। মাথার মধ্যে মগজচোষা জোঁকটি প্রতি মিনিটে মিনিটে টোকা দিতে লাগলো। মিহি স্বরে বলতো যেন, ‘লিখতে হবে, লিখতে হবে। লিখতেই হবে। কী ব্যাপার এখনও লেখা শুরু করছেন না কেন?’ কিন্তু বিচিত্র কোনো কারণে রাফাত সাহেব লিখতে পারেন না। তার সৃষ্ট চরিত্রগুলো ওনার নিয়ন্ত্রণে থাকে না। ওরা হয়ে যায় স্বাধীন সত্ত্বা। অবশেষে কী তিনি লিখতে পারবেন? কী ছিল সেই লেখা!

Tab Article

আমি সুফাই রুমিন তাজিন। “সুফাই রুমিন” নামটির জন্য কখনো কখনো বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয়েছে। আশা করি পাঠকসমাজ নাম নিয়ে বিভ্রান্ত হবেন না। পড়াশোনা শেষ করেছি আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। একসময় স্বনামধন্য এক রিসার্চ ফার্মে চাকরি করতাম কিন্তু ভালো না লাগার কারণে পরবর্তীতে ছেড়ে দিয়েছি। বই পড়তে প্রচণ্ড পছন্দ করি। সম্ভবত এই ভালোবাসা থেকেই মনের গভীরে লেখালেখির সুপ্ত ইচ্ছা তৈরি হয়েছিল। বইমেলা ২০২১-এ প্রথম উপন্যাস 'অন্তঃশূন্যে অন্ধ হিম' প্রকাশিত হয়েছে। এই ধারা অব্যাহত রাখতে বইমেলা ২০২২ -এ প্রকাশিত হয়েছে বুকস্ট্রিট প্রকাশনী থেকে 'জোকার' এবং অবসর প্রকাশনা সংস্থা থেকে প্রকাশিত হয়েছে 'ইটের পর ইট মধ্যে মানুষ কীট'। এই বইমেলায় কিছু গল্প সংকলনে আমার ছোট গল্প পাওয়া যাবে আশা করি। নিজের ব্যাপারে একটা কথাই বলতে চাই বই পড়তে ভালোবাসি, বই কিনতে পছন্দ করি। আর স্বপ্ন লেখালেখির সাথে আজীবন যুক্ত থাকা। এই প্রজন্মের প্রতি আহবান বই পড়ুন। অভিভাবকদের প্রতি বিনীত অনুরোধ নতুন প্রজন্মকে বইয়ের সাথে পরিচিত করে তুলুন। বই মানুষের প্রকৃত বন্ধু। এই শহরের বুকে আপন ভুবন নিয়ে আমার বসবাস।

ADD A REVIEW

Your Rating

3 REVIEW for শেষ গল্প !

.

Ahnaf Islam 2022-07-18 18:11:29

ছোটগল্প। ইউনিক কিছু না হলেও বেশ ভালোই। খারাপের মধ্যে বারবার 'তো যা বলছিলাম' শব্দাংশের ব্যবহার বেশ দৃষ্টিকটূ লেগেছে। এছাড়া গল্পটা বেশ উপভোগ্য ছিল৷

Zahidul Islam Tamim 2022-05-03 21:46:23

Bah , besh bhinnorokom ekta golpo. bhalo legeche.

Ragib Mahmud 2022-04-27 09:14:25

এ রকম আরও বই